উপায় ডুয়েল কারেন্সি কার্ড নেওয়ার উপায় – ইউসিবি উপায় প্রিপেইড কার্ড

উপায় ডুয়েল কারেন্সি কার্ড নিতে পারবেন যে কেউ কোন পাসপোর্ট ছাড়াই শুধু NID কার্ড দিয়ে। এই কার্ডটি দিয়ে আপনি অনলাইনে যে কোন বুস্টিং ও কেনাকাটা করতে পারবেন। তাই আজকে সম্পূর্ণ নিয়ম জানিয়ে দেবো কিভাবে উপায় ডুয়েল কারেন্সি কার্ডটি নিবেন।

উপায় ডুয়েল কারেন্সি কার্ডটি নেওয়ার জন্য আপনাকে কোন ব্যাংকে একাউন্ট খুলতে হবে না। শুধু Upay মোবাইল ব্যাংকিং Apps এর মধ্যে একাউন্ট খুলেই নিতে পারবেন। আর উপায় অ্যাপসের মধ্যে একাউন্ট খোলা খুবই সহজ। উপায় অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য প্রয়োজন হবে আপনার এনআইডি কার্ড।

আশা করি আপনি একটি উপায় অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন। উপায় অ্যাকাউন্ট খোলা খুবই সহজ শুধু প্লে স্টোর থেকে Upay এপসটি ইন্সটল করে। আপনার সকল ডকুমেন্টে একটি অ্যাকাউন্ট খুলে নেবেন। যদি আপনি উপায় account না খুলতে পারেন তাহলে নিচে অবশ্যই কমেন্ট করবেন তাহলে আমি পরবর্তী পোস্টে দেখিয়ে দেবো কিভাবে উপায় অ্যাকাউন্ট খুলতে হয়।

উপায় ডুয়েল কারেন্সি কার্ড অনলাইনে অডার

উপায় ডুয়েল কারেন্সি কার্ড অন্য কোথা থেকে নিতে পারবেন না। তাই আপনাকে অনলাইনে অডার করে উপায় ডুয়েল কারেন্সি কার্ড নিতে হবে। এই কার্ডটি অডার করার জন্য Upay Apps এর মধ্যে যেতে হবে। এবং উপায় লগইন করে হোমপেজের নিচে দেখুন “প্রিপেইড কার্ড ” অপসন আছে সেখানে ক্লিক করুন।

অথবা, হোম পেজের নিচে মধ্যে “একাউন্ট” অপসনে ক্লিক করুন।

পরের পেজে ‘প্রিপেইড কার্ড’ => “+রিকুয়েস্ট বাটনে ক্লিক করুন।

তাহলে কার্ড রিকুয়েষ্ট করার ফরম পেজ অপেন হবে। সেখানে পূরণ করুন

  • উপায় একাউন্ট নম্বর (অটোমেটিক লেখা থাকবে)
  • বাবার নাম (ভোটার আইডি সাথে মিল রেখে)
  • মায়ের নাম (ভোটার আইডি সাথে মিল রেখে)
  • ইমেইল আইডি (যেটা আপনার ফোনে আছে বা আপনি ব্যবহার করেন)
  • কার্ডে প্রদশিত নাম ( কার্ডে কি নাম থাকবে আপনার সেটার জন্য একটা নাম লিখুন)
  • শর্তবলীতে টিক✅ করে দিন

এবার ” এগিয়ে যান ” বাটনে ক্লিক করুন

পরের পেজ আসবে সেখানে একজনকে নমিনি রাখার জন্য ফরম দিবে। যদি আপনার নামে একাউন্ট হয় উপায় বা কার্ড তাহলে আপনার পিতামাতা বা বাড়ির আশেপাশে যে কাউকে নমিনিতে তথ্য দিতে পারবেন।

  • নমিনি NID নম্বর
  • নমিনি জন্ম তারিখ

তারপর ” পরবর্তী ” বাটনে ক্লিক করুন তাহলে পরের পেজে আপনার নমিনির সকল তথ্য চলে আসবে। তাই ভুল তথ্য দিবেন না তাহলে নমিনির তথ্য শো করবে না। নমিনি এর তথ্য সঠিক থাকলে আপনি আবার ” পরবর্তী ” বাটনে ক্লিক করুন।

পরের পেজ আসবে সেখানে পূরণ করুন। এই পেজে আপনার কার্ড ডেলিভারি করার ঠিকানা দিতে হবে।

• আপনার দেশের নাম
• আপনার বিভাগ
• আপনার শহর
• আপনার পোস্ট কোড
• ফ্লাট ও বাসা নম্বর / হোল্ডিং নম্বর
• ব্লক ও রোড নম্বর
• এলাকা/গ্রাম/লান্ডমার্ক
• স্বাক্ষর ছবি তুলুন ( আপনার nid কার্ডে যে রকম সাক্ষর দিছেন সেই রকম সাক্ষর একটা সাদা কাগজে লিখে সেটার ছবি তুলুন)

এরপর ” সাবমিট ” বাটনে ক্লিক করুন তাহলে আপনার কার্ডের জন্য আবেদন সফল হবে। এবং আপনার মোবাইলে একটি মেসেজ দিবে ও সকল তথ্য সঠিক থাকলে একটি মেসেজে কার্ডের ফি দিতে বলবে। যেমন নিচে ছবি দেখুন:

উপায় কার্ডের ফি পেমেন্ট করার নিয়ম

উপায় কার্ডের ফি পেমেন্ট করার জন্য আপনাকে উপায় অ্যাকাউন্ট লগইন করতে হবে। উপায় এপসের হোম পেজে নিচে ” প্রিপেইড কার্ড” অপসনে ক্লিক করুন অথবা একাউন্ট অপসনে যাবেন। সেখানে প্রিপেইড কার্ড এর পাশে পরিশোধ করুন বাটন পাবেন সেখানে ক্লিক করুন।

আপনার উপায় ব্যালেন্সে ৫৭৫ টাকা থাকলে আপনি ” “এখন পরিশোধ করুন” বাটনে ক্লিক করুন। তাহলে আপনার কার্ডের ফি প্রদান সফল হয়ে যাবে। এবং আপনার ফোনে একটি মেসেজ দিবে সেখানে বলবে আপনার পেমেন্ট সম্পূর্ণ হয়েছে। এবং আপনার কার্ডটি ১৫ দিনের মধ্যে আপনার কাছে পৌঁছায় যাবে।

উপায় ডুয়েল কারেন্সি কার্ড একটিভ

উপায় ডুয়েল কারেন্সি কার্ড হাতে পাওয়ার পর সেখানে অ্যাকাউন্ট একটিভ করার জন্য একটি কাগজ পাবেন। সেখানে আপনি অ্যাকাউন্ট একটিভ করার কোড পেয়ে যাবেন। যদি আপনি সেইভাবে একাউন্ট একটিভ না করতে পারেন তাহলে তাদের হেল্পলাইনে ফোন করে অ্যাকাউন্ট একটিভ করে নিবেন। এবং আপনার কার্ডের পিন নাম্বার সেট করে নিবেন।

অ্যাকাউন্ট একটিভ হয়ে গেলে আপনি খুব সহজেই উপায় অ্যাপসের মাধ্যমেই কার্ডটি কন্ট্রোল করতে পারবেন। তাই আপনাকে উপায় অ্যাপসের মধ্যে হোমপেজে থেকে “প্রিপেইড কার্ড” অপসনে যাবেন। এবং এখানেই আপনি সবকিছু দেখতে পারবেন।

• কার্ডের ব্যালেন্স
• কার্ডে টাকা লোড
• কার্ডের লেনদেন হিস্টোরি

কার্ডে লোড টাকা যাবে আপনার উপায় একাউন্ট থেকে। তো আপনি এভাবেই উপায় ডুয়েল কারেন্সি কার্ড এর জন্য অনলাইনে অডার করতে পারবেন।

এখুনি আমাদের গুগল নিউজ ফলো করে রাখুন। ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন

Post Share Now

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *