নবম শ্রেণির জীবন ও জীবিকা নমুনা-২ প্রশ্ন ও উত্তর ষান্মাসিক মূল্যায় ২০২৪

নবম শ্রেণির জীবন ও জীবিকা নমুনা-২ প্রশ্ন ও উত্তর

প্রিয় শিক্ষার্থী ভাই ও বোনেরা আপনাদের জীবন ও জীবিকা বিষয়ের প্রশ্ন বা উত্তর এখনো প্রকাশ করা হয়নি। তাই সময় নষ্ট না করে একটু পড়াশোনা করে নাও। যখনই আপনাদের প্রশ্ন বা উত্তর প্রকাশ করা হবে তখনই আমরা এই পোস্টে প্রশ্ন ও উত্তর আপডেট করে দেওয়া হবে।

আজকের ১০০% কমন প্রশ্ন ও উত্তর – নিচের লিংকে ক্লিক করুন

৯ম শ্রেণির জীবন ও জীবিকা মূল্যায়ন প্রশ্ন ও উত্তর ২০২৪

৯ম শ্রেণির জীবন ও জীবিকা মূল্যায়ন প্রশ্ন ও উত্তর ২০২৪

৯ম শ্রেণির জীবন ও জীবিকা মূল্যায়ন প্রশ্ন ও উত্তর ২০২৪

আজকের প্রশ্ন ও উত্তর দেখে নেও…

৬ষ্ঠ শ্রেণির গনিত মূল্যায়ন প্রশ্ন ও উত্তর ২০২৪

৭ম শ্রেণির বাংলা মূল্যায়ন প্রশ্ন ও উত্তর ২০২৪

৮ম শ্রেণির ইসলাম শিক্ষা মূল্যায়ন প্রশ্ন ও উত্তর ২০২৪

৮ম শ্রেণির হিন্দুধর্ম মূল্যায়ন প্রশ্ন ও উত্তর ২০২৪

৯ম শ্রেণির জীবন ও জীবিকা মূল্যায়ন প্রশ্ন ও উত্তর ২০২৪

তাই সময় মত প্রশ্ন ও উত্তরপত্র একই সাথে পাওয়ার জন্য আমাদের ওয়েবসাইটের টেলিগ্রাম, ফেসবুক বা হোয়াটসআ্যাপ ফলো করে রাখুন। অথবা আমাদের ওয়েবসাইটটি সেভ করে রাখুন।

আমরা আপনাদের জন্য সকল প্রশ্ন ও উত্তরপত্র একই সাথে একটি মাত্র পোস্টে দিয়ে থাকি। তাই আপনি খুব সহজেই প্রশ্ন ও উত্তরপত্র পেয়ে যাবেন আমাদের ওয়েবসাইট থেকে। আর আপনাকে অনলাইনে খোঁজাখুঁজি করতে হবে না।

নমুনা প্রশ্নোত্তর: ০১

আয়: কোনো কাজের মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করাকেই বলা হয় আয়। একজন চাকরিজীবী প্রতিষ্ঠান বা সরকারের হয়ে কাজ করার বিনিময়ে বেতন পান। একজন ব্যবসায়ী ব্যবসায়িক লেনদেনের মাধ্যমে মুনাফা অর্জন করেন। একজন কৃষক তার উৎপাদিত ফসল বিক্রি করে আয় করেন। চাকরিজীবীর বেতন, ব্যবসায়ীর মুনাফা এবং কৃষকের ফসল বিক্রি থেকে প্রাপ্ত অর্থ তাদের নিজ নিজ আয়। একজন শিক্ষার্থীও বিভিন্নভাবে আয় করে থাকে। যেমন: সরকার থেকে প্রাপ্ত বৃত্তি বা উপবৃত্তির অর্থ, অভিভাবক থেকে প্রাপ্ত টিফিনের অর্থ, জন্মদিনে আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধবের কাছ থেকে পাওয়া উপহার, উৎসবে পাওয়া সেলামি বা প্রণামি ইত্যাদি।

পারিবারিক আয়: একটি নির্দিষ্ট সময়ে পরিবারের সদস্যদের দ্বারা অর্জিত অর্থ বা ক্রয়ক্ষমতাকে সাধারণ অর্থে পারিবারিক আয় বলে। এখানে নির্দিষ্ট সময়ে কোনো পরিবারের বিভিন্ন উৎস থেকে যে নগদ অর্থপ্রাপ্তি ঘটে বা অর্জিত হয় তার সমষ্টিকে বলা হয় পারিবারিক আয়। যেমন: শ্রমের বিনিময়ে প্রাপ্ত পারিশ্রমিক, মজুরি বা বেতন, ব্যবসায় থেকে প্রাপ্ত লাভ, কৃষি ফসল বিক্রয় করে প্রাপ্ত আয়, ও নিকটাত্মীয়দের নিকট থেকে প্রাপ্ত আর্থিক সাহায্য ইত্যাদি।

প্রত্যক্ষ আয়: যে আয়ের ফলে নগদ অর্থের আগমন বা আর্থিক মূল্যের পণ্য বা সেবা পাওয়া যায় তাকে প্রত্যক্ষ আয় বলে। যেমন: চাকরিজীবীর বেতন, ব্যবসায়ীর মুনাফা, শ্রমিকের মজুরি, বিনিয়োগ থেকে প্রাপ্ত মুনাফা, সম্পদ বিক্রি প্রভৃতি প্রত্যক্ষ আয়ের উৎস। আয় বলতে মূলত প্রত্যক্ষ আয়কেই বোঝায়।

৯ম শ্রেণির জীবন ও জীবিকা মূল্যায়ন প্রশ্ন ও উত্তর ২০২৪

পরোক্ষ আয়: পরিবারের সদস্যদের বিভিন্ন দক্ষতার মাধ্যমে পারিবারিক ব্যয় হ্রাস পাওয়াকে পরোক্ষ আয় বলে। যেমন: কারো ব্যক্তিগত দক্ষতা কাজে লাগিয়ে সবজি উৎপাদন করে নিজে ভোগ করলে বাজার থেকে সবজি ক্রয়ের জন্য ব্যয় করতে হয় না। এটি একটি পরোক্ষ আয়। আবার, কেউ সেলাই কাজে দক্ষ হওয়ায় নিজের কাপড় নিজে সেলাই করে। ফলে দর্জির পেছনে ব্যয় করতে হয় না। এটিও পরোক্ষ আয়। একইভাবে কোনো শিক্ষার্থী বিনা বেতনে লেখাপড়ার সুযোগ পেলে তার পরিবারের ব্যয় বেঁচে যায়।

ব্যয়: যেকোনো ক্ষেত্রে অর্থ খরচ করাই হলো ব্যয়। দৈনন্দিন বিভিন্ন প্রয়োজন মেটানোর জন্য আমরা ব্যয় করি। যেমন- আমরা যে বাড়িতে থাকি তার নির্মাণ ব্যয় বা ভাড়া, খাদ্য ব্যয়, পোশাক ক্রয়ের ব্যয়, পরিবহন ব্যয়, চিকিৎসা ব্যয়, লেখাপড়ার সামগ্রী কেনার জন্য ব্যয় ইত্যাদি। মূলত সম্পদ বা পণ্য ক্রয় কিংবা ব্যবহারের জন্য ভাড়া এবং সেবা ক্রয় করার জন্যই আমরা ব্যয় করে থাকি। এসব সম্পদ বা পণ্য ব্যবহার এবং সেবা গ্রহণের ফলে আমরা আমাদের বিভিন্ন উপযোগ মেটাই ।

পারিবারিক ব্যয়: পরিবারের সদস্যদের বিভিন্ন চাহিদা পূরণ করে সুষ্ঠুভাবে পরিবার পরিচালনার জন্য যে খরচ হয় তার সমষ্টিকে বলা হয় পারিবারিক ব্যয়। মনে কর, তোমার স্কুলে যাওয়া, নাশতা, টিউশন বাবদ কিছু টাকা খরচ হয়। আবার তোমার বাবা বাসা ভাড়া, বাড়িভাড়া, রাজার বাবদ কিছু টাকা ব্যয় করেন। তোমার অসুস্থ দাদির চিকিৎসা করাতেও খরচ হয়। এসব খরচকে একত্রে পারিবারিক ব্যয় বলে।

ব্যয় পরিকল্পনা: ভবিষ্যতে কোন খাতে কত টাকা খরচ হবে তার আগাম চিন্তাই হলো ব্যয় পরিকল্পনা। অর্থাৎ, এটি হলো ব্যয় করার পরিকল্পিত পদ্ধতি। ব্যয় পরিকল্পনা করার আগে পরিবারের মোট আয় জানতে হয়। এরপর নিশ্চিত ও সম্ভাব্য ব্যয়গুলো চিহ্নিত করা হয়। চিহ্নিত খাতে সম্ভাব্য অর্থ বরাদ্দ করে রাখতে হয়। প্রকৃত ব্যয় বরাদ্দকৃত অর্থের চেয়ে কম বা বেশি হতে পারে। এভাবে পরিকল্পনা করে ব্যয় করা হলে সেটিই হচ্ছে ব্যয় পরিকল্পনা। পরিকল্পিত ব্যয় সঞ্চয়ে সহায়তা করে থাকে।

সঞ্চয়: সঞ্চয় হচ্ছে আয়ের একটি অংশ যা বর্তমানে ভোগ না করে ভবিষ্যতের জন্য জমা করে রাখা হয়। কোনো ব্যক্তি বা পরিবারের সয় বলতে ঐ ব্যক্তি বা পরিবারের আয়ের সেই অংশকে বোঝায় যা বিনিয়োগের মাধ্যমে মোট আয় বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। বিভিন্ন উদ্দেশ্যে আমরা সঞ্চয় করে থাকি যেমন— জীবনযাপনের প্রয়োজনে: গৃহ নির্মাণ, ছেলে-মেয়ের ভবিষ্যৎ, বৃদ্ধ বয়সে জীবনযাপন, শিক্ষা, বিয়ে ইত্যাদি।

জরুরি প্রয়োজনে: প্রাকৃতিক দুর্যোগ, অসুস্থতা, দুর্ঘটনা, পারিবারিক বিপর্যয় ইত্যাদি।
সুযোগ-সুবিধা প্রাপ্তিতে: নতুন ব্যবসায় তৈরি, ব্যবসা-বাণিজ্য বিস্তার, প্রয়োজনীয় ও বিলাস দ্রব্য ক্রয় ইত্যাদি।

কাজ -১: তোমার পরিবারের জন্য এক মাসের ব্যয় পরিকল্পনা কর।

কাজের ধরন: একক

উদ্দেশ্য :

  • পারিবারিক ব্যয়ের পরিকল্পনা করতে শেখা।
  • অপ্রয়োজনীয় খরচ নিয়ন্ত্রণ করা।
  • আর্থিক শৃঙ্খলা বজায় রাখা।
  • প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র:
    • কাগজ
    • কলম
    • পেন্সিল
    • ইরেজার


কাজের নির্দেশিকা:

  • ব্যয় পরিকল্পনা সম্পর্কে ধারণা নাও।
  • এবার ভাব তোমার পরিবারে এক মাসে কোন কোন খাতে ব্যয় হয়।

পরিবারের অভিভাবক ও অনন্য সদসের সঙ্গে আলোচনা করে নেও। এবার ছকটি পূরণ কর।

উত্তরঃ

৯ম শ্রেণির জীবন ও জীবিকা মূল্যায়ন প্রশ্ন ও উত্তর ২০২৪
Post Share Now

দ্রুত আপডেট পেতে ফলো করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *