দেশে প্রথম ৫-জি সেবা চালু

দেশে প্রথম ৫-জি সেবা চালু ৩০ই অক্টোবরের মধ্যে

বাংলাদেশে প্র্রথম ফাইভ-জি সেবা চালু করবে বানিজ্যিকভাবে গুলসান-বনানীসহ বেশ কয়েকটি জায়গায়। টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এ নির্দেশ দিয়েছেন।

প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, ৩০ অক্টোবরের মধ্যে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের থার্ড টার্মিনাল, গুলশান, বনানী এলাকা ও চট্টগ্রাম বন্দর এলাকায় বাণিজ্যিকভাবে ফাইভ-জি সেবা চালু করতে হবে।

২০২১ সালের ১২ ডিসেম্বর প্রথম বাংলাদেশ সচিবালয়, জাতীয় সংসদ ভবন ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়সহ দেশের ৬টি স্থানে পরীক্ষা মূলকভাবে দ্রুতগতির ৫-জি সেবা চালু করে টেলিটক। সেই পথ অনুসরণ করে এরইমধ্যে বিভাগীয় শহরে ফাইভ-জি সেবার পরীক্ষা সম্পন্ন করেছে বেসরকারি তিনটি মোবাইল অপারেটর যেমন, গ্রামিনফোন, বাংলালিংক, রবি।

এদিকে ৫জি লাইসেন্সপ্রাপ্ত চার প্রতিষ্ঠানকে দ্বিতীয় বছরের শুরু থেকে সব প্রতিষ্ঠানকে ফাইভ-জি সেবা চালু করতেই হবে। এসব সেবার মধ্যে আছে স্মার্ট হোম, স্মার্ট সিটি, ইনটেলিজেন্ট ট্রান্সপোর্টেশন সিস্টেম, স্মার্ট গ্রিডসহ বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সেবা।

‘রেগুলেটরি অ্যান্ড লাইসেন্সিং গাইডলাইনস ফর সেলুলার মোবাইল সার্ভিসেস ইন বাংলাদেশ’ নামের এই সমন্বিত নীতিমালা ৫-জির পাশাপাশি ২জি, ৩জি ও ৪জি প্রযুক্তির জন্যও প্রযোজ্য হবে।

গেছে ২০২২-এর মার্চে দেশের ৪টি মোবাইল অপারেটর গ্রাহকদের ৫-জি সেবা দেয়ার জন্য ১২৩ কোটি মার্কিন ডলারের ১৯০ মেগাহার্জ তরঙ্গ কিনেছে।

Post Share Now

দ্রুত আপডেট পেতে ফলো করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *